ডিজিটাল ক্যামেরা বিক্রি বন্ধ করে দিচ্ছে কোডাক

আর্থিক সমস্যার কারনে কোডাক ডিজিটাল ক্যামেরা বিক্রি বন্ধ করে দিচ্ছে। ১৮৮৮ সালে যখন ক্যামেরা প্রযুক্তি মাত্র যাত্রা শুরু করেছে সেই সময়ের একটি ব্র্যান্ড এখন ক্যামেরা বাজারজাতই বন্ধ করতে বাধ্য হচ্ছে।

১৯৭৫ সালে তারাই প্রথম ডিজিটাল ক্যামেরা বিশ্বকে উপহার দিয়েছিল আর এখন তারাই এই ভূবন থেকে বিদায় নিচ্ছে এটি সয়ং কোডাক ও ফটোগ্রাফীপ্রেমী অনেকের মনেই হতাশা সৃষ্টি করেছে।

কোডাকের চীফ মার্কেটিং অফিসার Pradeep Jotwani জানান,

“For some time, Kodak’s strategy has been to improve margins in the capture device business by narrowing our participation in terms of product portfolio, geographies and retail outlets. Today’s announcement is the logical extension of that process, given our analysis of the industry trends”

উল্লেখ্য সারা বিশ্বে কোডাকের ১ লাখের বেশি বিক্রয়কেন্দ্র আছে যাতে কোডাক ক্যামেরা এবং প্রিন্টিং উপকরণ বিক্রি করে থাকে।

এখন ছবিতে দেখে নেই কোডাক ক্যামেরার সংক্ষিপ্ত ইতিহাসঃ

এক.

১৮৮০ সালে ব্যাংক ক্লার্ক ফিল্ম তৈরী করেন এবং ১৮৮৮ সালে তিনি কোডাক ব্র্যান্ড প্রতিষ্ঠা করেন।

দুই.

১৯৩২ সালে ইস্টম্যান আত্মহত্যা করেন। মৃত্যুকালে তিনি লিখে যান, To my friends. My work is done. Why wait?

তিনি একজন দানশীলও ছিলেন। তিনি ১০০ মিলিয়ন ডলার দান করে যান এবং তার বাসাটি ফটোগ্রাফী জাদুঘর করা হয়।

১৯০০ সালে কোডাকের অন্যতম আবিষ্কার BROWNIE বাজারে বিক্রি শুরু হয়। এই সময়ের আগে এত কমদামে কেউই ক্যামেরা বিক্রি করতে পারে নাই। BROWNIE'র বিভিন্ন মডেলের ক্যামেরা বিশ্ব জুরে ১৯৬০ সাল পর্যন্ত রাজত্ব করতে থাকে।

তিন.

১৯৩৬ সালে ভিডিও ধারন করতে সক্ষম CINE-KODAK ক্যামেরা উদ্ভাবন করে।

চার.

১৯৫৭ সালে সয়ংক্রিয় ভাবে নির্দিষ্ট সময় পরে ছবি তোলতে সক্ষম ক্যামেরা BROWNIE STARMATIC তৈরী করে কোডাক।১৯৭০ সালে এটি পকেটে রাখার উপযোগি ভার্শন বাজারে আসে।

পাচঁ.

১৯৭৫ সালে অডিও ক্যাসেটে ছবি সংরক্ষণযোগ্য ক্যামেরা নিয়ে আসে তারা। ১.৫ মেগা পিক্সেলের এটিই সবচেয়ে কমদামী ক্যামেরা ছিল।

ছয়.

২০০৪ সালে কোডাক তার ফিল্ম ব্যবসা বন্ধ করে দেয়। ২০১১ সালে কোডাকের শেয়ারের দাম অনেক কমে যায়।

সাত.

এত বছরের কোডাকের রয়েছে ১০০০ এর বেশি ফটোগ্রাফী প্যাটেন্ট। এগুলো নিয়ে কোডাক নতুন কিছু করবে কিনা তা অবশ্য এখনও কিছু বলা যাচ্ছে না।

Leave a Comment