অনলাইন ছোট ব্যবসায় ২০১২ তে কি কি পরিবর্তন আনতে পারেন?

অনলাইনে বাংলাদেশে অল্পকিছু ব্যবসা পরিচালিত হয় আর বাংলাদেশে তাই অনলাইন ব্যবসার কোন দিক নির্দেশনাও নাই।  ভবিষ্যতের সাথে মিলিয়ে নিতে হবে আপনার অনলাইন ব্যবসাকে। আপনার প্রোজেক্টের ধরন অনুসারে কোন কোন কথা নাও মিলতে পারে আমি সাধারন কয়েকটি বিষয় উল্লেখ করছি যার মাধ্যমে আপনার অনলাইন ব্যবসা নতুন পথ পেতে পারে।

১.  ওয়েবসাইট নতুন করে ডিজাইনঃ

আপনার ওয়েবসাইটটি নতুন পৃথিবীর সাথে মানিয়েছে কিনা সেটা দেখে নিন। ২০১১ তে HTML5 এব CSS3'র ব্যবহার বেশ উল্লেখযোগ্য। আর তাই আপনার ওয়েবসাইটের ডিজাইনারকে নতুন ফরমেটে কোডিং করতে বলতে পারেন। আপনার ওয়েবসাইট ভিজিটর এবং কয়েকজন ওয়েব ডিজাইনারের সাথে আলাপ করে ডিজাইনের পরিবর্তন করতে পারেন।

২. মোবাইল ওয়েবঃ

আপনার ওয়েবসাইটের মোবাইল ভার্শণ ডিজাইন করে নিন। আপনার ক্লাইন্ট যাতে মোবাইলে সহজ তার তথ্যগুল পেতে পারে তার ব্যবস্থা করে নিন। সামনের দিনগুলোতে মানুষ মোবাইল ওয়েবের প্রতি নির্ভরশীল হয়ে পরবে। আর তার অনুপস্থিতিতে আপনার সাইটের ভিজিটরও কমে যেতে পারে।

৩. লোকাল মার্কেট

এলাকা ভিত্তিক মার্কেটে আপনি প্রবেশ করতে পারেন। কাস্টমার তার কাছাকাছি কারো কাছ থেকে সেবা গ্রহণ করতে আগ্রহী হয় যাতে করে সহজেই সমস্যায় পরলে সমাধান পায়। ওয়েবসাইটের এলাকা ভিত্তিক প্রচারণার ব্যবস্থা করতে পারেন।

৪. কাছাকাছি যাওয়াঃ

ক্লাইন্টের একেবারে কাছে আবস্থানের চেস্টা করুন। কাছে যেতে ক্লাইন্টকে ফেসবুক, টুইটার ইত্যাদি নেটওয়ার্কে যুক্ত করুন। বর্তমান ওয়েবে মার্কেটিং এ এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

৫. অনলাইন যোগাযোগকে অফলাইনে পরিনতঃ

অনলাইন পরিচয়কে অফলাইনে টেনে নিয়ে আসতে পারেন। এজন্য মিটআপ বা পরিবারিক বা অফিসিয়াল আয়োজন করতে পারেন। অনেক সয়ময়ই অনলাইন পরিচয়ে বিশ্বস যোগ্যতা আর্জন করা যায় না। আর তাই সরাসরি দেখা করার প্রয়োজন হয়।

 

2 thoughts on “অনলাইন ছোট ব্যবসায় ২০১২ তে কি কি পরিবর্তন আনতে পারেন?”

Leave a Comment