সৈনিক নির্বাচনের পদ্বতি

সৈনিক পদে চান্স পাওয়ার অভিজ্ঞতা Bangladesh Army Soldier Exam / Senabahini  Soinik By Kazi Obin - YouTube

সৌনিক হতে হলে আমাদের যা যা প্রয়োজন তা আমরা জানবো।প্রথমত সৈনিক হতে হলে আমাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা লাগবে। সর্বোচ্চ এসএসসি সারটিফিকেট।এবং এর পয়েন্ট হিসেবে সর্বোচ্চ ৩.০০ হতে হবে। এরপর যেকোনো জায়গা থেকে তারা আবেদন করতে পারবে।কিন্তুু এইসএসসি এবং অনার্স সার্টিফিকেট থাকলে তাদের একটু বেশি গুরুপ্ত দেওয়া হয়।এর মধ্যে সাধারন ট্রেডের জন্য - ২০।

সেনাবাহিনীর চাকুরিতে উচ্চতা যত দরকার !! অফিসার ও সৈনিক পদের উচ্চতা !!  =Bangladesh Army Height Video - YouTube

এবং টেনকিক্যাল ট্রডএর জন্য বয়স ১৭-২১।এবং সার্কুলারের তারিখ অনুযায়ী একদিন কম ও না আর একদিন বেশিও না।এরপর আসবে উচ্চতা নিয়ে। ছেলেদের জন্য উচ্চতা ৫.৬/৫.৭।তবে সাধারন স্কেলে ৫.৭ থাকলে ভালো হয়।এরপর আসবে ওজন নিয়ে। ওজন সর্বনিম্ম ৫০ কেজি এবং সর্বোচ্চ ৬৫ কেজি। কিন্তু এখানে শর্ত হচ্ছে উচ্চতা অনুযায়ী।এরপর বুকের মাপ নেওয়া হবে। বুকের মাপ ৩০- ৩২।

পশ্চিমবঙ্গ সৈনিক স্কুলে গ্রুপ - সি ও ডি পদে কর্মী নিয়োগ ২০১৯ | Read Latest  Bengali News, বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর, Bangla News | Bongnews24X7.Com

সংকোচিত অবস্থায় ৩০ এবং প্রসারিত অবস্থায় ৩২ হতে হবে। অন্যদিকে মেয়েদের ক্ষেত্রে উচ্চতা ৫.৩ /৫.৪।এবং ওজন সর্বোনিম্ন ৪৭ কেজি এবং সর্বনিম্ন ৬০ কেজি ওজন অনুযায়ী। এবং বুকের মাফ ২৭ - ৩০। ছেলেমেয়েদের সাধারনত অবিবাহিত হতে হবে।কোনো প্রকার তালাক প্রাপ্ত গ্রহনযোগ্য নয়।এরপর সার্কুলারের নিয়ম অনুযায়ী আবেদন করতে হবে।এরপর ৭২ ঘন্টা পরে এসএমএস দিয়ে স্থান, সময় ও পরিক্ষার সময় জানিয়ে দেওয়া হবে।এরপর সময় মতো সঠিক স্থানে পৌছে যেতে হবে।

বাংলাদেশ আর্মি ট্রেনিং || দেখুন বাংলাদেশ আর্মিদের কি ভয়াবহ ট্রেনিং করতে  হয় ।Bangladesh Army Training - YouTube

এরপর বিআরইউ তে প্রবেশ করতে হবে।সেখানে গিয়ে শরীরের জামা কাপড় খুলে চেয়ারে বসতে হবে বা সিরিয়ালে দাড়িয়ে থাকতে হবে।পরিধানে শুধু আন্ডার ওয়ার থাকবে যা হাটুর উপর পর্যন্ত থাকবে।এরপর যারা এইচএসসি পাশ এবং এসএসসি পাশ যারা তাদেরকে আলাদা করে দুইটি লাইন করা হবে।এরপর প্রথমিক মেতিকেল করা হবে। এরপর উত্তিন হলে চুরান্ত মেডিকেল করা হবে। এরপর যারা উর্ত্তিন হয়েছে তাদের লেখার পরিক্ষা নিতে হবে।মোট ৫০ নাম্বারে পরিক্ষাটি হবে। বাংলা, ইংরেজি,গনিত এবং সাধারন ঞ্জান। এরপর একটি মাঠে নিয়ে যাওয়া হবে শারীরিক যোগ্যতা যাচাই করার জন্য।সেখানে প্রথমে দৌড় দেওয়া হবে এবং দৌড় থেকে আসার সাথে সাথে বুক ডাউন দেওয়া হবে।যেসব থেকে ভালো করবে তাকেই বেশি নাম্বার দেওয়া হবে।এরপর সবাইকে নিয়ে আসা হবে এবং জামা কাপড় পড়তে হবে। খাবারের জন্য সময় দেওয়া হবে।এরপর ভাইবা নেওয়া হবে।এরপর সবকিছু সম্পূর্ন হলে কিছুক্ষন পর মের্জর এসে চুরান্ত ফলাফল প্রকাশ করা হবে।এরপর যারা বাদ পড়বে তারা চলে যাবে এবং যারা উর্ত্তিন আবার আসতে হবে অবিভাবকের সাথে।তখন তাদের রক্ত পরিক্ষা করা হবে।এরপর থানায় খবর নেওয়া হবে কোনো খারাপ কাজে যুক্ত কিনা।এরপর তাকে সবকিছু দেখার পর শরীরের মাপ মেওয়া হবে এবং চুরান্ত নিয়োগ পত্র প্রদান করা হবে।

Leave a Comment