জানা অজানা মহাজগৎ এবং আমাদের কৌতুহল

কোন একটা বিষয় সহজ কিংবা জটিল, যাই হোক না কেন; বিষয়টি শেখার সহজ উপায় হচ্ছে সেই বিষয়টির সাথে সম্পৃক্ত ছোট ছোট মৌলিক বিষয়গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত এবং বস্তব ভিত্তিক ব্যবহারিক জ্ঞান অর্জন করা। এক সময় দেখা যাবে আপনি অনেক কিছুই শিখে গিয়েছেন। আপনার চেতনার বিস্তৃত মহাজগতে বিষয়টিকে স্থান করে দিতে পেরেছেন। যা আপনার চিন্তাশক্তিকেও খানিকটা প্রভাবিত করতে শুরু করেছে। ভাল বা মন্দ উভয় ফলাফলই হতে পারে , সেটা পরের বিষয়। একটু অন্যভাবে চিন্তা করা যাক………

এই বিশাল মহাজগতের খুব সামান্যই একজন মানুষের পক্ষে জনা সম্ভব হয়, তারপরও মানুষই এই বিশ্বজগতের সবচেয়ে বুদ্ধিমান প্রাণী। আমরা  এই বিশ্বজগতটাকে দুটো অংশে ভাগ করি যার একটা অংশ আমাদের চেনা পরিচিত এবং অপর অংশটা সম্পর্কে আমরা কিছুই জানি না। কিন্তু একথাও সত্য যে আমরা চাইলেই আমাদের চেনাজানা জগৎটার পরিধী বৃদ্ধি করতে পারি। আর এ ব্যপারে মানুষের যে গুণটা সবচেয়ে বেশি কাজ করে তা হল তার কৌতুহল অথবা নতুনকে জানার আকাংখ্যা।

আজকের এই আধুণিক বিশ্বের সৃষ্টির পেছনে যদি মানুষের কোন বড় শক্তি কাজ করে থাকে তাহলে সেটা মানুষের কৌতুহল। আমাদের সহজাত প্রবৃত্তি হচ্ছে, যে কথাটা এখনো শোনা হয়ে ওঠেনি সেটা শোনা, যে অঞ্চলটা কখনো দেখা হয়নি সেটা দেখা, যা কখনো স্পর্শ করা হয়নি তা স্পর্শ করা। আর এজন্যই মানুষ জল, স্থল, মহাশুণ্যে ইতোমধ্যেই পদচিহ্ন রাখতে সক্ষম হয়েছে। সাম্প্রতিক ঘটনা, খুব বেশি নতুন, খুব বেশি পুরাতন, বেশি দূরত্ব, বেশি উচ্চতা, বেশি অর্থমূল্য, বেশি ক্ষুদ্র অথবা বেশি বড় বিষয়গুলো কৌতুহলকে প্রভাবিত করে।

আপনার বেশ কয়েকজন বন্ধুর প্রত্যেকের জন্য দুইটা করে গানের অ্যালবাম কিনলেন, যাদের একটি বহু পুরনো এবং একটি একেবারেই নতুন। কিন্তু আপনি নিশ্চিৎ যে আপনার বন্ধুরা এই দুটো এলবামের কোনটিই কখনো শোনেনি। আপনার বন্ধুদেরকে আলাদা আলাদা ভাবে গানের অ্যালবাম দুটো দেয়ার পর যদি পর্যবেক্ষণ করেন, দেখবেন ৮৫% ক্ষেত্রে দেখা যাবে যে আপনার বন্ধুটি প্রথম শোনার জন্য নতুন এলবামটিকে বেছে নিয়েছে।

এখন একটা কাজ করা যাক, আপনি আপনার বন্ধুকে জানিয়ে দিলেন, যে নতুন এলবাম টির তুলনায় পুরনো এলবামটির দাম প্রায় ১৫ গুণ বেশি, এবং এটা খুব কম মানুষের কাছেই আছে। এক্ষেত্রে দেখা যাবে ৯৫% ক্ষেত্রে আপনার বন্ধুটি প্রথম শোনার জন্য পুরানো এলবামটিকে বেছে নিয়েছে। এক্ষেত্রে অর্থমূল্য এবং বহু পুরনো বিষয়টি আপনার বন্ধুকে প্রভাবিত করেছে।

আপনার কাছে প্রশ্ন: আপনার বন্ধুটির পুরোনো এলবামটিকে বেছে নেয়ার  ক্ষেত্রে কোন প্রভাবকটি বেশি কাজ করেছে ; অর্থমূল্য না বেশি পুরনো ?

আপনারা কয়েকজন বন্ধু মিলে সিদ্ধান্ত নিলেন, কোথাও বেড়াতে যাবেন। যদি আপনাদের কাছে যথেষ্ঠ পরিমাণ টাকা, সময় এবং সুযোগ থাকে তাহলে কাছের কোন স্থান নির্বাচন করার চেয়ে দূরের কোণ স্থান নির্বাচন করতেই বেশি পছন্দ করবেন। এক্ষেত্রে একসাথে অনেকগুলো প্রভাবক কাজ করে বেশি দূরত্ব, অর্থমূল্য, বেশি উচ্চতা ইত্যাদি । তবে এক্ষেত্রে অর্থমূল্যের চেয়ে বেশি দূরত্ব বিষয়টিই মানুষকে বেশি প্রভাবিত করে।

যে প্রভাবকই কাজ করুক না কেন, সকল কৌতুহলই আমাদেরকে নতুন কিছু শিখার এবং জানার সুযোগ করে দেয়। যা আমাদের চিন্তাশক্তিকে প্রভাবিত করে । এটার আবার ভাল এবং মন্দ উভয় দিকই আছে। কৌতুহল আপনার জ্ঞান ভান্ডারকে বৃদ্ধি করে এটা সবচেয়ে ভাল দিক, আবার আপনার কৌতুহলের মাত্রা বা অকাংক্ষা বেশি হলে আপনার স্বাভাবিক চিন্তাশক্তিকে বিগ্ন ঘটাতে পারে। মনে করুন আপনি ভিডিও গেমস খেলছেন, নতুন নতুন স্টেজ পার করছেন আর মুগ্ধ হচ্ছেন, আপনার কৌতুহল আরো বেড়ে যাচ্ছে, পরবর্তী ধাপে কি আছে জানার জন্য, এক সময় গেমসটি সম্পূর্ণ করলেন; তারপর দেখলেন আজ আপনার প্রাইভেটে যাওয়া হয়নি,আপনার বন্ধুর সাথে বই কিনতে যাওয়ার কথা ছিল সেটাও মিস হয়ে গেছে।

আমার নিজের একটা কথা বলি। মাইক্রোকন্ট্রোলার বিষয়টি আমার অন্যতম আগ্রহের বিষয়। দেখা গেছে কোন একটা প্রজেক্ট এর পরিকল্পনা অথবা কোন সমস্যা মাথায় এসেছে, অথচ দুই দিন পর পরীক্ষা, কিন্তু কোন ভাবেই মনোযোগ দিতে পারছি না কোন দিকেই। না পারছি পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিতে, না পারছি প্রজেক্ট এর সমস্যা সমাধান করতে। এটা খুবই খারাপ একটা অবস্থা তৈরি করে থাকে।

 ...............................................................................................

আজ এ পর্যন্ত্ই। সবার জন্য শুভ কামনা রইল।

Leave a Comment