২০১১ সালের নতুন ১০ প্রজাতির প্রাণী

 

উল্টা নাকী বানর


প্রতি বছর মে মাসে আরিযুনা ষ্টেট বিশ্ববিদ্যালয়ের(ASU) ইন্টারন্যাশনাল ইন্সটিউট ফর স্পিসিস এক্সপ্লোরেশন এ পুর্ববর্তী বছরের প্রাণীর মধ্যে থেকে শীর্ষ ১০ প্রজাতির প্রাণী ঘোষনা করে থাকেন। এই বছরও তার ব্যতিক্রম হয়নি। প্রাণী নির্বাচনের ক্ষেত্রে নির্বাচক দলে অংশগ্রহনকারীরা তাদের নিজস্ব মানদণ্ডে, এবং কিছু অদ্ভুত বৈশিষ্ট্য এবং নামের উপর ভিত্তি করে এসব প্রাণী নির্বাচন করে থাকেন।
২৩ মে কেরোলাস লিনিয়াসের জন্মদিন, যিনি প্রানি এবং উদ্ভিদের নামকরণের জনক। তাই গত মাসের ২৩ মে ঘোষনার দিন নির্ধারণ করেছিলেন ।

বিজ্ঞানীর প্রথম জানতে পেরেছিল "স্নাবি" নামক বানর সম্পর্কে। যেটি মায়ানমার এ পাওয়া যায়।

লেজযুক্ত বক্স জেলী ফিশ


বনায়ার(Bonaire) ডাচ কেরিবীয় দ্বীপে লেজযুক্ত বক্স জেলী ফিশ দেখতে পাওয়া যায়। লম্বা রঙিন লেজ থাকার জন্য এদেরকে খুব সুন্দর দেখায়। জনৈক বিজ্ঞানী Tamoya ohboya নামে এই  প্রজাতির নামকরণ করেন।

বিস্ময়কর লেগ সসেজ


তানজানিয়ার পশ্চিম আর্ক পর্বতে এদেরকে পাওয়া যায়। এবং সেখানে এই প্রজাতি লেগ সসেজ নামে পরিচিত।  সাইজে এরা মাত্র ৬.৩ ইঞ্চি বা ১৬ সে.মি.। এদের বৈজ্ঞানিক নাম Crurifarcimen vagans। ছবিতে প্রদর্শিত লেগ সসেজটি এখনও পর্যন্ত পাওয়া সবচেয়ে বড় বহুপদী প্রাণী ।

সামিজাস তারান্তুলা


অসম্ভব সুন্দর সামিজাস তারান্তুলা ব্রাজিলের বাহিয়া নামক প্রদেশে দেখতে পাওয়া যায় ।
এদের বৈজ্ঞানিক নাম Pterinopelma sazimai। নীল প্রজাতির এই প্রানীর আবাসস্থান অনেকটা ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে।

রাতে ফোঁটা অর্কিড


এই প্রজাতির বৈজ্ঞানিক নাম Bulbophyllum nocturnum।এই ধরণের অর্কিড রাত ১০ দিকে ফোটে এবং পরবর্তী সকাল হতে হতে পাপড়ি বন্ধ হয়ে যায় যা অর্কিডের ২৫০০০ প্রজাতির মধ্যে একমাত্র ব্যতিক্রমী বৈশিষ্ট্য।

ওয়াকিং ক্যাকটাস


এদের বৈজ্ঞানিক নাম Diania cactiformis। এরা দৈর্ঘ্যে ২.৪ ইঞ্চি লম্বা এদের ১০ জোড়া পা রয়েছে ।
এই প্রাণীটি ৫০০ মিলিয়ন বছর আগে পৃথিবীতে বাস করতো। বিবর্তিত হয়ে বিলুপ্ত হয়ে গেছে ।

dive-bombing ভীমরুল

পরজীবীভুক্ত ভীমরুলের একটি নতুন প্রজাতি পাওয়া গিয়েছিল ইউরোপে। এদের বৈজ্ঞানিক নামকরণ করা হয় Kollasmosoma sentum

শরৎকালের পপি ফুল


পপি ফুলের সঠিক তথ্য সম্পর্কে অনেক বছর অজানা ছিল সম্ভবত এরা মাটি থেকে অনেক উঁচু অথায় প্রায় ১৪০০০ ফুট উঁচুতে বাস করতো তাই হইতো আজানা ছিল।
১৯৬২ সালের দিকে উদ্ভিদবিদগন এদেরকে সংগ্রহ করেন তবে একটি নতুন প্রজাতি হিসেবে অনুমোদন করেন নি।

ডেভিল ওয়ার্ম


ডেভিল ওয়ার্ম মাটির মাইলখানেক গভীরে বাস করে। এটিই একমাত্র প্রাণী যা মাটির সবচেয়ে গভীরে পাওয়া ।

Spongebob Squarepants মাশরুম


Spongebob Squarepants মাশরুমযাদের বৈজ্ঞানিক নাম Spongiforma squarepantsii। এই মাশরুম প্রজাতিটি মালেশিয়ায় পাওয়া যায় যা দেখতে অনেকটা স্পঞ্জের মত। যা বিখ্যাত কার্টুন চরিত্র SpongeBob এর নামে নাম দেয়া হয়।

একচোখা হাঙ্গর


২২ ইঞ্চি লম্বা মাথার সামনে এক চোখবিশিষ্ট একটি প্রাণী, এটি একটি জন্মগত অবস্থা একে সাইক্লপিয়া বলা হয়। মানুষসহ বিভিন্ন প্রানীর এটি হয়ে থাকে।

Leave a Comment