ব্লগ সাইটের ভবিষ্যত ভাবনা

অধিকাংশ ব্লগারই প্রথম দিকে বুঝতে পারে না-যে সে কোন দিকে যাচ্ছে? কত দিনে কত দূর পথ সে অতিক্রম করতে পারবে? তার লক্ষটাই বা কি? অথবা লক্ষ্য পূরনে কত সময় লাগতে পারে?ব্লগ সাইটের ভবিষ্যত ভাবনা

মূলতঃ ব্লগিং এর প্রথম পর্যায়ে অনেক বেশি লেখালেখি, পড়াশোনা আর সামাজিক নেটওয়ার্কে যুক্ত থাকতে হয় যে, নিজের কাজের অবস্থানটা বুঝে উঠতে সময় লেগে যায়। সবাই এটা বুঝতে পারে যে, দিন দিন ভিজিটর বাড়ছে, সাইটের উন্নতি হচ্ছে, কিন্তু এটা জানে না যে, এই গতিতে সাইটটি নিয়মিত অগ্রগতি হলে আগামী কত বছরে কত দূর যাওয়া যেতে পারে। অনেকে নিজের লক্ষ্যটা নিজেই জানে না, ওয়েব সাইটটি কি উদ্দেশ্যে, কত দিন, কিভাবে চলবে এটা অনেক নতুন ব্লগারই চিন্তা করে দেখেন নাই।

আপনার সাইটের ভবিষ্যত পরিকল্পনা কি?

কথাটার একটা বাস্তব প্রমানের জন্য আমি কয়েকজন বাংলা ব্লগারকে জিজ্ঞাস করেছিলাম, আপনার সাইটের ভবিষ্যত পরিকল্পনা কি? এর মধ্যে  প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য অনেকেই প্রস্তুত ছিলেন না। আমার মতে প্রশ্নটি তাদের জন্য সহজ কিছু ছিল না ও এই প্রশ্নটি তাদের ভাবিয়েছে।যারা জবাব দিয়েছে তাদের মধ্যে

মামুন বলেছেন,

আপাততঃ কোন পরিকল্পনা নাই। তবে ভবিষ্যতে নিজেকে একজন সার্থক ব্লগার হিসেবে দেখতে চাই যাকে এক নামে সবাই চিনবে।

অসীম বলেছেন,

সংক্ষেপে বলতে গেলে সকলের জন্য টেকনোলজি চর্চার একটি উপযুক্ত প্লাটফর্ম প্রতিষ্ঠা করা। আমি আমার সাইটের ভিজিটরদেরকে শুধুমাত্র পাঠক নয় গবেষক হিসেবে পেতে চাই। যারা নিজেদের গবেষণার বিষয়গুলো পরস্পরের সাথে বিনিময় করবে। ফলস্বরূপ প্রত্যেকের গবেষণার বিষয়গুলি বহুমাত্রিক রূপ লাভ করবে। একজন সাধারণ ছাত্রও যেন একজন সফল গবেষক হয়ে উঠতে পারে তার জন্য আমাদের সকলের প্রচেষ্টা অব্যহত থাকবে। " আসলে বিজ্ঞান বা টেকনোলজি চর্চার একমাত্র উদ্দেশ্য নিজেকে একজন বিজ্ঞানী বা গবেষক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করা" এই ছোট্ট বাক্যটিকে বাস্তবায়ন করাই আপাতত আমার স্বপ্ন । জানিনা কতদূর যেতে পারব।

রনি পারভেজ বলেন,

দারুন একটা বিষয় ভাইয়া। একটু ফ্রি হলেই আপনার প্রশ্নটার উত্তর নিয়ে ব্লগে একটা পোষ্ট প্রকাশ করবো।

আরও অনেককে একই প্রশ্ন করি ও তারা তার জবাব দেয় নি। আমার মনে হলো যে তাদের কেউ কেউএ্ই প্রশ্নটির উত্তর দেওয়ার জন্য সম্পূর্ণভাবে প্রস্তুত নয়। এর কারন হলো তারা জানে না যে, তাদের ব্লগটি কতটা মূল্যবান।

সাহিত্যিক ও ব্লগার

কবি জীবনান্দ দাস যখন কবিতা লিখতেন তখন তার পাঠক গুষ্ঠী ছিল বর্তমানের চেয়ে অনেক কম। সেই সময় তার কবিতা যতটা জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে তার চেয়ে এখন বেশি জনপ্রিয়। বেপারটার কারন কি? তিনি কি ভবিষ্যতের কবি? অনেকের ক্ষেত্রে এমনই হয়। অনেকের লেখার ধার এমন যে মনে হবে এই মাত্র লিখে প্রকাশ করেছেন। হৃদয়ের সাথে কথা মিশে যায়। অধিকাংশ কবি সাহিত্যিক বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত থেকে তাদের সাহিত্য চর্চা চালিয়ে যেতেন, কিন্তু তারা যদি যানতো যে তারা কত মহান হতে যাচ্ছেন...!!!

ব্লগারদেরও আমি একই রকম সু-সংবাদ দিতে চাই। তারা যে কত বেশি জনপ্রিয় ও বিশ্বনন্দিত হতে যাচ্ছেন তা নিজেরাও জানেন না।

সফলতার কোন পর্যায়ে আছেন?

ব্লগিং এর সফলতার কোন সিড়িতে আছেন তার ধারণা নেওয়া কঠিন তবে অসম্ভব নয়। আমি আমার বাংলা সাইটের পোষ্ট সংখ্যা, পোষ্টের মান ও ভিজিটরের বেপারে একটা ভবিষ্যত ধারনা করতে পারি। আমার সাইটে ১০০ পোষ্ট থাকাবস্থায় দৈনিক ভিজিটর ছিল প্রায় ২০০,  ৩০০+ পোষ্ট থাকবস্থায় ৮০০+ ভিজিটর। আমার যদি দৈনিক ৫০০০ ভিজিটরের একটা টারগেট থাকে তাহলে আমাকে লেখালেখির বেপারেও একটা প্লান নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে। আর এটা শুধু পোষ্টের সংখ্যার উপর নির্ভর করে না। আমি একটা উদাহরণ টানলাম মাত্র।

সফলতার পর্যায়টার কথা মনে না রেখে অনেকে অনেক ভাল ব্লগ বানানোর পরেও সময় দেয়া বন্ধ করে দেয়। হারিয়ে ফেলি বিশাল সম্ভাবনাময় ব্লগারকে।

আরও পড়ুনঃ

3 thoughts on “ব্লগ সাইটের ভবিষ্যত ভাবনা”

  1. “কি লিখেছেন ভাই! দারুন লেখা” এ রকম বলার ইচ্ছা করছে কিন্তু আপনি তো আবার এ সব মন্তব্য পছন্দ করেণ না।
    ঠিক আছে আরও কিছু অংশ জুড়ে দিলাম। আসলে অনেকে লেখে টাকার জন্য, অনেকে লেখে নিজেকে পরিচিত কারার জন্য, অনেকে লেখে শখের জন্য আবার অনেকে লেখে শেখার জন্য। আমি সর্বশেষ শ্রেণীর।
    আপনার উদ্দেশটা কি বলবেন?

  2. মূলতঃ চাকরী ও ব্যাবসা দুই শ্রেনীর কাজের সাথেই আমার পরিচয় আছে। জীবনে বিলাসিতা নয়, স্বাধীনতা প্রিয়হতে চাই আর এটা লেখালেখির মাধ্যমে সম্ভব বরে মনে করি তাই লেখালেখিকে নিজের প্রফেশন হিসেবে নিতে চাই। ব্লগ থেকে আয়টা মূখ্য না, তবে চাকরী করার কারনে ব্লগিং করার জন্য পর্যাপ্ত সময় দিতে পারি না। তাই আয়কে এর মধ্যেই প্রবেশ করানোর মাধ্যমে ব্লগিং এ নিজেকে ভালভাবে সম্পৃক্ত করতে চাই।

    ধন্যবাদ, মতামত দেওয়ার জন্য।

  3. টিউটো ভাই ধন্যবাদ,
    “আপনার সাইটের ভবিষ্যত পরিকল্পনা কি?” আপনার প্রশ্নটি আপনাকেই আবার ফিরিয়ে দিলাম।
    উত্তরের অপেক্ষায় রইলাম ………………………………..

Leave a Comment